ঐচ্ছিক ছুটি কয় দিন

Uncategorized

পূর্বঘোষণা অনুযায়ী, পবিত্র ঈদুল ফিতরের আগে ৮ ও ৯ এপ্রিল অফিস খোলা থাকবে। তার মানে আগের ঘোষণা অনুযায়ী ঈদের ছুটি তিন দিন থাকবে। অবশ্য ছুটির পঞ্জি অনুযায়ী ঈদুল ফিতরে নির্ধারিত ঐচ্ছিক ছুটি (এক দিন) নেওয়ার সুযোগ পাবেন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে আজ সোমবার বিকেলে সচিবালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ঐচ্ছিক ছুটির ব্যবস্থা আছে। যাঁরা নির্ধারিত পদ্ধতিতে আবেদন করবেন, তাঁরা এ ছুটি নিতে পারবেন। এটির জন্য আলাদা নির্দেশ দেওয়ারও প্রয়োজন নেই। এটি ছুটির মধ্যেই আছে। প্রতিবছর যখন শিক্ষাপঞ্জি (ছুটির ক্যালেন্ডার) করা হয়, তখন নিচে সেটি লেখা থাকে। আবহাওয়া অধিদপ্তরের প্রতিবেদনসহ অন্যান্য প্রসঙ্গ টেনে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এ বছর রমজান মাস ৩০ দিন হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ২০২৪ সালের ছুটির প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, মুসলমানদের জন্য এ বছর মোট ৫ দিন ঐচ্ছিক ছুটি আছে। এর মধ্যে ঈদুল ফিতরের পর ১৩ এপ্রিল ঐচ্ছিক ছুটি নির্ধারণ করা আছে। কিন্তু এবার ১৩ এপ্রিল শনিবার এমনিতেই সাপ্তাহিক ছুটির দিন পড়েছে।

উল্লেখ্য, ধর্ম অনুযায়ী ঐচ্ছিক ছুটি নির্ধারণ করা হয়।

মন্ত্রিসভার একটি সূত্রে জানা গেছে, আসন্ন পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সরকারি ছুটি ৯ এপ্রিল এক দিন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়নি মন্ত্রিসভায়। ফলে এবার ঈদের ছুটি আগের ঘোষণা অনুযায়ী ১০ থেকে ১২ এপ্রিল পর্যন্ত তিন দিনই থাকছে। যদিও বাস্তবে সরকারি চাকরিজীবীরা ছুটি ভোগ করবেন আরও বেশি। কারণ, ১৩ এপ্রিল শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি। তার পরদিন রোববার আবার পয়লা বৈশাখের ছুটি। মানে হলো, পাঁচ দিন টানা ছুটির সুযোগ থাকছেই।

পূর্বঘোষণা অনুযায়ী, আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সরকারি ছুটি (চাঁদ দেখা সাপেক্ষে) ১০ থেকে ১২ এপ্রিল। তবে গতকাল রোববার সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত আইনশৃঙ্খলাবিষয়ক মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে ৯ এপ্রিল এক দিন ছুটি বাড়ানোর সুপারিশ করা হয়েছিল। এদিকে পবিত্র শবে কদরের পরদিন, ৭ এপ্রিল সরকারি ছুটি। তার আগে ৫ ও ৬ এপ্রিল দুই দিন শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি।

ফলে কোনো কর্মকর্তা–কর্মচারী যদি ৮ ও ৯ এপ্রিল ছুটি নিতে পারেন, তাহলে তিনি লম্বা ছুটি ভোগ করতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *