বার্সা-মেসির চুক্তির ন্যাপকিন পেপার নিলামে বিক্রি হয়েছে ১১ কোটি টাকায়

খেলা সর্বশেষ

ট্রায়ালে ১৩ বছরের লিওনেল মেসিকে দেখেই দলে ভেড়াতে আগ্রহী হয়ে ওঠেছিল বার্সেলোনা। যার প্রাথমিক চুক্তিটি হয়েছিল ন্যাপকিন পেপারে। মেসি-বার্সা চুক্তির সেই দলিলটি নিলামে তুলেছিল ব্রিটিশ অকশন হাউজ বোনহামস। শুক্রবার তারা জানিয়েছে, সেটি বিক্রি হয়েছে উচ্চমূল্যে। নিলামে সেটি ৭ লাখ ৬২ হাজার ৪০০ পাউন্ডে বিক্রি হয়েছে। যার পরিমাণ বাংলাদেশি মূদ্রায় ১১ কোটি ৩৪ লাখ ১৮ হাজার টাকার কিছু বেশি।

ন্যাপকিনে চুক্তিটি হয়েছিল ২০০০ সালে। তখন বার্সার স্পোর্টিং ডিরেক্টর কার্লেস রেক্সাস মেসির বাবা হোর্হে মেসি ও তাদের অ্যাজেন্ট হোরাসিও গ্যাগিওলিওর সঙ্গে চুক্তি করতে সম্মত হয়েছিলেন। পরে তো এই মেসি ক্লাবটির সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছেন। এই নিলামের ভিত্তি মূল্য ধরা হয়েছিল ৩ লাখ পাউন্ড। বার্সায় যোগ দেওয়ার পর এখান থেকেই মেসির উত্থান। ক্লাবটির কিংবদন্তি হয়ে ওঠা। স্প্যানিশ জায়ান্টদের হয়ে ৩০টিরও বেশি ট্রফি জিতেছেন। কাতালান ক্লাবটির সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতাও তিনি। রেকর্ড আটবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী মেসি এখন যুক্তরাষ্ট্রের মেজর লিগ সকারের ক্লাব ইন্টার মায়ামির হয়ে খেলছেন। ২০২২ সালে কাতারে বিশ্বকাপ জিতে পেয়েছেন অমরত্বও।

বিবৃতিতে বোনহামসের পক্ষে ইয়ান এহলিং বলেছেন, ‘হ্যাঁ, এটা ন্যাপকিন পেপার। কিন্তু ভুলে গেলে চলবে না এটা সেই বিখ্যাত ন্যাপকিন যার মাধ্যমে মেসির ক্যারিয়ারের সূচনা। এটাই মেসির জীবন ও বার্সার ভবিষ্যৎ বদলে দিয়েছিল এবং বিশ্বজুড়ে কোটি কোটি ভক্তকে ফুটবলের সবচেয়ে গৌরবময় মুহূর্ত উপহার দেওয়ার ক্ষেত্রে ভূমিকা রেখেছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *