রাজবাড়ী হাসপাতালে

রাজবাড়ী হাসপাতালে ডায়রিয়াসহ বিভিন্ন রোগীর চাপ

বাংলাদেশ

তীব্র দাবদাহে রাজবাড়ীর জেলা সদর হাসপাতালসহ উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলোতে ডায়রিয়াসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত রোগীদের অত্যধিক চাপ সৃষ্টি হয়েছে। রোগীর চাপে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ চিকিৎসা সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছে।রবিবার (২১ এপ্রিল) সকালে জেলা সদর হাসপাতালে দেখা যায়, তীব্র গরমে আক্রান্ত রোগীরা আউটডোর ও ইনডোরে ভিড় করে চিকিৎসা সেবা নিতে আসছে। এর মধ্যে গরমজনিত রোগীই বেশি।

সদর হাসপাতালের ডায়রিয়া ওয়ার্ডে ৩০ জন রোগী ভর্তি রয়েছে। এর মধ্যে শিশু ও বয়স্ক রোগীই বেশি। রবিবার সকাল ১০টা পর্যন্ত ২২ শয্যার ডায়রিয়া ওয়ার্ডে ৩৫ জন রোগী ভর্তি থেকে চিকিত্সাসেবা নিয়েছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রোগীর চাপ আরো বাড়বে বলে জানায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

তবে ডায়রিয়া ছাড়াও জ্বর, সর্দি, কাশি, নিউমোনিয়াসহ নানা ধরনের রোগীর চাপ রয়েছে হাসপাতালে।রোগীর চাপে ১০০ শয্যার হাসপাতালে বর্তমানে ২৫০ জন রোগী ভর্তি রয়েছে। তবে এর মধ্যে তীব্র গরমজনিত রোগীর সংখ্যাই বেশি। স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় বর্তমানে তিন-চার গুণ রোগী হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসেছেন।

ইনডোরে ভর্তি রোগীদের পাশাপাশি আউটডোরে চিকিৎসা নিচ্ছে এক হাজার ২০০ থেকে দেড় হাজার রোগী।

সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. শেখ মো. আব্দুল হান্নান বলেন, ‘তীব্র রোদ ও অতিমাত্রায় গরমের কারণে হাসপাতালে রোগীর চাপ বেশি রয়েছে। এতে হাসপাতালের বেড ছাড়িয়ে ফ্লোরেও চিকিৎসাসেবা দিতে হচ্ছে। প্রতিদিন গড়ে প্রায় দেড় হাজার রোগীকে শুধু আউটডোরে চিকিৎসা দিতে হচ্ছে। ইনডোরে ১০০ শয্যার হাসপাতালে বর্তমানে ২৫০ জন রোগী ভর্তি আছে।

তবে হাসপাতালে ওষুধসংকট নেই। প্রয়োজনীয় ওষুধ থাকায় রোগীদের চিকিৎসাসেবা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে বলে জানান তত্ত্বাবধায়ক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *