স্বল্প মূল্যে চিকিৎসাসেবা দিচ্ছে মৌলভীবাজার ইম্পেরিয়াল মেডিক্যাল হাসপাতাল

বিশ্ব সর্বশেষ

প্রত্যন্ত এলাকার মানুষের জন্য স্বল্পমূল্যে সব ধরনের চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে মৌলভীবাজার ইম্পেরিয়াল মেডিক্যাল হাসপাতাল। মৌলভীবাজার শহর থেকে তিন কিলোমিটার দূরে মাতারকাপনে অবস্থান এই ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট অত্যাধুনিক মানের মেডিক্যাল হাসপাতালের।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, হাসপাতালটিতে রয়েছে মেডিসিন, সার্জারি, গাইনি এন্ড অবস্ ও শিশু বিভাগ। অত্যাধুনিক অপারেশন থিয়েটার এবং প্রি-পোস্ট অপারেটিভ রুম, উন্নতমানের অটোমেটিক মেশিন সমৃদ্ধ অত্যাধুনিক ল্যাব, জাপানি এক্স-রে মেশিন, কালার্ড আলট্রাসাউন্ড মেশিন, ইসিজি মেশিনে সব ধরণের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়।এছাড়া মেডিসিন বিশেষজ্ঞ, গাইনি এন্ড অবস্ বিশেষজ্ঞ, সার্জারি বিশেষজ্ঞ, শিশু বিশেষজ্ঞ, ফিজিক্যাল মেডিসিন বিশেষজ্ঞ, কার্ডিওলজিস্ট, দক্ষ নার্স। অভিজ্ঞ ডাক্তার এবং নার্সদ্বারা পরিচালিত ইম্পেরিয়াল মেডিক্যাল হাসপাতালে অত্যন্ত সাশ্রয়ী মূলে সেবা দেওয়া হয়। ল্যাব টেস্টে ৫০% ডিসকাউন্ট এবং বিষেশজ্ঞ ডাক্তার ফি মাত্র ১০০ টাকা।

 

মৌলভীবাজার শহরের বাসিন্দা আবুল হোসেন ও নাসরিন বেগম বলেন, আমরা হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে গিয়ে দেখলাম তাদের সেবার মান ভাল, টাকাও কম।ল্যাব টেস্টে ৫০ পাসের্ন্ট ডিসকাউন্ট। এত পরিস্কার ও পরিচ্ছন্ন। তবে হাসপাতালটি শহর থেকে একটু দূরে হওয়ার কারণে রোগী যেতে চায় না আর হাসপাতাল সুযোগ সুবিধা অনেকেই জানে না।

 

মৌলভীবাজার ইম্পেরিয়াল মেডিক্যাল হাসপাতালের নার্সিং সুপারভাইজার ঝুমা রানী পাল বলেন, প্রতিদিন রোগীর সংখ্যা বাড়ছে।একবার যে রোগী চিকিৎসা গ্রহন করেছে, সে অন্যান্য রোগীকে কম টাকায় ভালো চিকিৎসা নিতে উদ্বুদ্ধ করছে।

 

মৌলভীবাজার ইম্পেরিয়াল মেডিক্যাল হাসপাতালের পরিচালকের দায়িত্বে নিয়োজিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক পরিচালক (প্রশাসন) এবং মিরপুর বিআইএইচএস জেনারেল হাসপাতালের সাবেক সিইও ও পরিচালক অধ্যাপক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অব.) ডা. মো. আব্দুল মজিদ ভূঁইয়া বলেন, ‘আমি দায়িত্ব গ্রহন করেছি দুইমাস হয়েছে। দায়িত্ব গ্রহনের পর থেকে স্বল্প আয়ের মানুষেদেরকে আমরা সেবা দেওয়ার মহৎ লক্ষ্য নিয়ে কাজ শুরু করেছি। আমাদের দেশে দেখা যায় অনেক স্বল্প আয়ের মানুষ যারা তাদের চিকিৎসায় টেস্টের খরচ বহন করতে পারেন না, ফলে তাদের রোগ ঠিকমতো শনাক্ত হয় না। আমরা সাধারণ মানুষের জন্য সেই সুবিধাটুকুই করে দিয়েছি।

স্বল্প মূল্যে চিকিৎসাসেবা দিচ্ছে মৌলভীবাজার ইম্পেরিয়াল মেডিক্যাল হাসপাতাল
মৌলভীবাজার ইম্পেরিয়াল মেডিক্যাল হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন রোগীরা
প্রত্যন্ত এলাকার মানুষের জন্য স্বল্পমূল্যে সব ধরনের চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে মৌলভীবাজার ইম্পেরিয়াল মেডিক্যাল হাসপাতাল। মৌলভীবাজার শহর থেকে তিন কিলোমিটার দূরে মাতারকাপনে অবস্থান এই ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট অত্যাধুনিক মানের মেডিক্যাল হাসপাতালের।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, হাসপাতালটিতে রয়েছে মেডিসিন, সার্জারি, গাইনি এন্ড অবস্ ও শিশু বিভাগ। অত্যাধুনিক অপারেশন থিয়েটার এবং প্রি-পোস্ট অপারেটিভ রুম, উন্নতমানের অটোমেটিক মেশিন সমৃদ্ধ অত্যাধুনিক ল্যাব, জাপানি এক্স-রে মেশিন, কালার্ড আলট্রাসাউন্ড মেশিন, ইসিজি মেশিনে সব ধরণের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়।

এছাড়া মেডিসিন বিশেষজ্ঞ, গাইনি এন্ড অবস্ বিশেষজ্ঞ, সার্জারি বিশেষজ্ঞ, শিশু বিশেষজ্ঞ, ফিজিক্যাল মেডিসিন বিশেষজ্ঞ, কার্ডিওলজিস্ট, দক্ষ নার্স। অভিজ্ঞ ডাক্তার এবং নার্সদ্বারা পরিচালিত ইম্পেরিয়াল মেডিক্যাল হাসপাতালে অত্যন্ত সাশ্রয়ী মূলে সেবা দেওয়া হয়। ল্যাব টেস্টে ৫০% ডিসকাউন্ট এবং বিষেশজ্ঞ ডাক্তার ফি মাত্র ১০০ টাকা। 

মৌলভীবাজার শহরের বাসিন্দা আবুল হোসেন ও নাসরিন বেগম বলেন, আমরা হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে গিয়ে দেখলাম তাদের সেবার মান ভাল, টাকাও কম।

ল্যাব টেস্টে ৫০ পাসের্ন্ট ডিসকাউন্ট। এত পরিস্কার ও পরিচ্ছন্ন। তবে হাসপাতালটি শহর থেকে একটু দূরে হওয়ার কারণে রোগী যেতে চায় না আর হাসপাতাল সুযোগ সুবিধা অনেকেই জানে না। 

মৌলভীবাজার ইম্পেরিয়াল মেডিক্যাল হাসপাতালের নার্সিং সুপারভাইজার ঝুমা রানী পাল বলেন, প্রতিদিন রোগীর সংখ্যা বাড়ছে।

একবার যে রোগী চিকিৎসা গ্রহন করেছে, সে অন্যান্য রোগীকে কম টাকায় ভালো চিকিৎসা নিতে উদ্বুদ্ধ করছে। 

মৌলভীবাজার ইম্পেরিয়াল মেডিক্যাল হাসপাতালের পরিচালকের দায়িত্বে নিয়োজিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক পরিচালক (প্রশাসন) এবং মিরপুর বিআইএইচএস জেনারেল হাসপাতালের সাবেক সিইও ও পরিচালক অধ্যাপক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অব.) ডা. মো. আব্দুল মজিদ ভূঁইয়া বলেন, ‘আমি দায়িত্ব গ্রহন করেছি দুইমাস হয়েছে। দায়িত্ব গ্রহনের পর থেকে স্বল্প আয়ের মানুষেদেরকে আমরা সেবা দেওয়ার মহৎ লক্ষ্য নিয়ে কাজ শুরু করেছি। আমাদের দেশে দেখা যায় অনেক স্বল্প আয়ের মানুষ যারা তাদের চিকিৎসায় টেস্টের খরচ বহন করতে পারেন না, ফলে তাদের রোগ ঠিকমতো শনাক্ত হয় না। আমরা সাধারণ মানুষের জন্য সেই সুবিধাটুকুই করে দিয়েছি।

তিনি আরো বলেন, ‘মানুষের ডিমান্ড অনুযায়ী ডাক্তারের ব্যবস্থাপত্র, রোগ নির্ণয়, পরীক্ষা-নিরীক্ষা, চিকিৎসাসেবা, অপারেশন, ওষুধপ্রাপ্তি সবকিছু দেওয়া হচ্ছে একই ছাদের নিচে। অর্থাৎ এখানে আসার পর একজন রোগীকে চিকিৎসার জন্য আর অন্য কোথাও যেতে হবে না।’

ইতোমধ্যে ইম্পেরিয়াল মেডিক্যাল হাসপাতালের কর্তৃপক্ষ ইউরোপের অর্ধশতাধিক চিকিৎসকের উপস্থিতিতে ‘ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প’-এর আয়োজন করে। সেখানে বিনামূল্যে সাধারণ মানুষকে বিভিন্ন রোগের স্বাস্থ্যসেবা প্রদানসহ রোগীদের ঔষুধও প্রদান করা হয়। ওই মেডিক্যাল ক্যাম্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষিমন্ত্রী উপাধ্যক্ষ ড. মো. আব্দুস শহীদ এমপি এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর সাবেক স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ উপদেষ্টা এবং বাংলাদেশ মেডিক্যাল রিসার্চ কাউন্সিলের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *